ভুলেও স্ত্রীকে যে ৪ কথা বলা যাবে না

এখনবাংলা: বলে-‘সংসার সুখের হয় রমণীর গুণে, পূণ্যবান পতি যদি থাকে তার সনে’। তো স্বামী আর স্ত্রী দুজনের সম্মিলিত প্রচেষ্টাতেই গড়ে ওঠে একটি সুখের সংসার। দাম্পত্য সম্পর্ক টিকিয়ে রাখার জন্য দুজনের মধ্যেই ভালোবাসা,

সহমর্মিতা, আন্তরিকতা এবং আত্মত্যাগ অনেক জরুরি। এর একটির অভাব হলেই নষ্ট হয় সংসারের শান্তি। তবে সংসারের সুখ-শান্তির জন্য কিছু

ব্যাপারে স্বামীর দায়িত্ব কিছুটা বেশি। কেননা তার সামান্য একটি কথায় উড়ে যেতে পারে এতদিন ধরে গড়ে তোলা সংসারের সুখপাখিটি।তাই স্ত্রীর

প্রতি আচার ব্যবহারে সংযম ও সহনশীলতার পরিচয় দিতে হবে। কোনও স্বামীরই তার সহধর্মিনীকে মুখ ফসকে এমন কথা বলা যাবে না যাতে তিনি

মনে কষ্ট পান। আপনার মনে রাখতে হবে- আপনার স্ত্রী সবকিছু ছেড়ে আপনার কাছে এসেছে। আপনি যদি তাকে ভালোবাসা না দেন, বিশ্বাস না

করেন তাহলে তো সে অসহায় হয়ে পড়বে। মনে রাখবেন আপনার সংসারটাকে সেই তো সাজিয়ে গুছিয়ে ফুলের মতো সুন্দর করে রাখেন। তাই

তাকে ভালোবাসুন এবং উপযুক্ত সম্মান দিন। তাকে ভুলেও এমন কিছু বলা যাবে না যাতে তিনি কষ্ট পান। বিশেষ করে চারটি বিষয়ের দিকে

সবসময় খেয়াল রাখতে হবে।প্রতিটি কাজে একে অপরকে সম্মান করুন। ধরুন আপনার স্ত্রী হাউস ওয়াইফ, কিংবা সে আপনার চেয়ে কম বেতনের চাকরি করে। কিন্তু

তারপরও কখনও তাকে একথা বলবেন না, ‘তোমার চেয়ে আমার চাকরি গুরুত্বপূর্ণ।’ আপনার সময় না থাকলে তাকে বুঝিয়ে বলুন। তাই বলে এভাবে অসম্মান করা যাবে না তাকে।

ফেসবুকে আমরা